মঙ্গলবার, ৩১ জানুয়ারী ২০২৩
 
Chahida News

প্রচ্ছদ মুক্তমঞ্চ অষ্টগ্রামে করোনা, বোরো ফসল, ভয়, আতঙ্ক ও দুইটি কথা

অষ্টগ্রামে করোনা, বোরো ফসল, ভয়, আতঙ্ক ও দুইটি কথা

গোলাম রসূল | ১১:১৪ পূর্বাহ্ন, ১৮ এপ্রিল, ২০২০

1587186894.jpg
গোলাম রসূল

গোলাম রসূল: অবশেষে করোনা আমাদের প্রাণের অষ্টগ্রামে আক্রমণ করেছে। এখন থেকে প্রতিদিন করোনা আক্রমণের নতুন নতুন খবর আসতে থাকবে। সরকার ঘোষিত সাধারণ ছুটির উদ্দেশ্য ছিল সবাই যার যার ঘরে অবস্থান করবে এবং জরুরি প্রয়োজন ছাড়া বাইরে বের হবে না। ঘর থেকে বের হলে প্রয়োজনীয় স্বাস্থ্য বিধি মেনে চলার সরকারি নির্দেশনা এখনও বিদ্যমান। কিন্তু দু:খের সাথে বলতে হচ্ছে আমার প্রিয় অষ্টগ্রামের মানুষ সেসব নির্দেশনা আমলে নেয়নি এবং এখনো নিচ্ছে না। ঢাকা-নারায়ণগঞ্জসহ বিভিন্ন শহর থেকে হাজার-হাজার কর্মজীবী মানুষ গ্রামে ফিরে গিয়ে যেন উৎসবে মেতেছিলেন এতদিন। তারই খেশারত দেবার সময় এসেছে এবার।

এখন মানুষ অনেক সতর্ক। যদি এ সতর্কতা তারা শুরু থেকেই অবলম্বন করতেন তবে হয়তো আজকে সবাইকে ভয় আর আতংক নিয়ে দিন কাটাতে হতনা। তবে এজন্য কাউকে দায়ী করা যাবে না। ইউরোপ-আমেরিকার শিক্ষিত-সচেতন মানুষজনও শুরুতে করোনা ভাইরাসকে পাত্তা দেয়নি। ফলে সেসব দেশে আজ মৃত্যুর মিছিল। সেখানে অষ্টগ্রামের মানুষকে আমরা দোষ দিতে পারি না। তবে খুব কষ্ট পেয়েছি একদল শিক্ষিত ও সচেতন মানুষের কিছু কার্যক্রমে। নানান ধরণের সামাজিক কার্যক্রম করতে গিয়ে অজ্ঞতা ও অসাবধানতাবসত তারা করোনার ঝুঁকি আরো বাড়িয়ে দিয়েছেন।

তবে এখনো সময় আছে সতর্ক হওয়ার। যতটুকু ক্ষতি হয়েছে সেটি পুষিয়ে নেয়ার সুযোগ নেই। সুযোগ আছে ভবিষ্যত সংক্রমণ থেকে নিজেদেরকে রক্ষা করার। সরকার ঘোষিত প্রয়োজনীয় স্বাস্থ্য বিধি মেনে চলে সবাইকে ঘরে অবস্থান করতে হবে। যারা বোরো ফসল তুলছেন তারা নিরাপদ দূরত্বে থেকে কাজ করুন। গ্রামের মোড়ে মোড়ে আড্ডা দেয়া বন্ধ করুন। চা-ষ্টলে চা খাবেন না। একজনের মুখের বিড়ি বা সিগারেট আরেকজন খাবেন না। তবেই করোনা আপনাদের কাছে আসবে না।

প্রিয় অষ্টগ্রামবাসী, যারা করোনায় আক্রান্ত হবেন তাদেরকে শত্রু মনে করবেন না। তাদের প্রতি কোন ধরণের অন্যায় আচরণ করবেন না। তাদের জায়গায় আপনি নিজেকে বসান। আক্রান্তদের বিষয়ে করণীয় ঠিক করবে স্বাস্থ বিভাগ ও স্থানীয় প্রশাসন।

জেনে রাখুন করোনায় আক্রান্ত হলেই আপনি মারা যাবেন না। শুধুমাত্র শারীরিকভাবে দুর্বল ও যাদের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কম তাদের মৃত্যু ঝুঁকি বেশি। আশার কথা অনেক বয়স্ক মানুষও করোনা থেকে আরোগ্য লাভ করছেন। সুতরাং করোনা নিয়ে অযথা ভয় পাবেন না। নিজে আতংকিত হবেন না এবং ফেসবুকের মাধ্যমে অন্যদের মাঝেও অহেতুক আতংক ছড়াবেন না। নিজে সতর্ক ও সচেতন হোন এবং সবাইকে সচেতন করতে ব্যাপক প্রচারণা চালান। মনে রাখবেন, ভয় নয়, সচেতনতার মাধ্যমেই করোনাকে করতে হবে জয়।

এদিকে হাওরে এবারে বোরো ধান কাটা নিয়ে শ্রমিক সংকটের যে আশঙক্ষা ছিল সেটি এখন আর নেই। হাওরের প্রত্যেক এলাকায় বিভিন্ন শহর থেকে প্রচুর পরিমাণে মানুষ কর্মহীন হয়ে পড়ায় গ্রামে ফিরে এসেছে। আমি ব্যক্তিগতভাবে বিভিন্ন এলাকায় খোঁজ নিয়ে জেনেছি তাদের কারণে শ্রমিক সংকটের অবসান হচ্ছে। তবে মজুরি একটু বেশি দিতে হচ্ছে। কৃষকেরা বাধ্য হচ্ছেন অতিরিক্ত মজুরি দিতে।

আরেকটি আশার কথা এবার হাওরে বাম্পার ফলন হয়েছে। ইতিমধ্যে সরকার ঘোষণা দিয়েছে দুই লাখ মেট্টিক টন অতিরিক্ত ধান কিনবে। ফলে আশা করা যায় আমাদের কৃষকরা ক্ষতিগ্রস্থ হবেন না। ভালো থাকুক আমাদের কৃষকরা, ভালো থাকুক আমাদের প্রাণের হাওরবাসী।

লেখক: সাংবাদিক ও হাওর উন্নয়নকর্মী। 

1 Comments

Foysal Ahmed
১০:৩৯ অপরাহ্ন, ১৮ এপ্রিল, ২০২০
মামা শুনেছি আগাম বন্যা হবে এ নিয়ে প্রতিবেদন তৈরী করতে অনুরোধ করছি

Post Your Comment

সম্পাদক: গোলাম রসূল, উপদেষ্টা সম্পাদক: কুদ্দুস আফ্রাদ ও ইব্রাহিম খলিল খোকন, নির্বাহী সম্পাদক: এস. এম. ফরহাদ
বার্তাকক্ষ: 01911214995, E-mail: info@vatirrani.com
Developed by CHAHIDA.COM